Wednesday , December 8 2021
গুগল অ্যাডসেন্স এপ্রুভ হওয়ার আগে যে কাজ ভুলেও করবেন না

গুগল অ্যাডসেন্স এপ্রুভ হওয়ার আগে যে কাজ ভুলেও করবেন না

হ্যালো বন্ধুরা, আশা করি সবাই ভালো আছেন। আজ আপনাদের সাথে কথা বলবো গুগল অ্যাডসেন্স নিয়ে । জানাবো এমন কিছু ভুল ও সমস্যার কথা অথ্যাৎ গুগল অ্যাডসেন্স এ্যাপ্রুভ করার আগে  কোন কোন কাজগুলো আপনি  ভুলেও করবেন না। কারণ  আপনার কিছু ছোট ছোট ভুল গুগল অ্যাডসেন্স পেতে খুবই বিলম্বিত ও বাধার সৃষ্টি করবে । এমনকি গুগল অ্যাডসেন্স নাও পেতে পারেন। আসুন জেনে নেই সেই ভুলগুলো কি কি যা আমরা প্রতিনিয়ত করে থাকি।

গুগল অ্যাডসেন্স কি?

গুগল অ্যাডসেন্স কি? সেটা নিয়ে নতুন করে আর বলার কিছু নেই । তারপরেও নতুনরা যদি কেউ  না জেনে থাকেন তাহলে ইন্টারনেটের কল্যাণে বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং ইউটিউব ঘাটলে আশা করি খুব ভালোভাবে জানতে পারবেন। ব্লগিং, ইউটিউবিং কিংবা অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট করছেন কিন্তু এডসেন্স/ এডমোব পাওয়ার আশা বা চেষ্টা করছেন না এরকম লোক খুবই কম রয়েছে।

একটা সময় ছিল যখন গুগল এডসেন্স হরহামেশাই পাওয়া যেত । যেকোনো সাইট থেকে ভালো ভালো মানের ১৫-২০ টি আর্টিকেল কপি করে নিজের সাইটে প্রকাশ করেও এডসেন্স এর জন্য আবেদন করলেই ২৪-৪৮ ঘন্টার মধ্যেই এডসেন্স এ্যাপ্রুভ হতো ।  অনেকেই আছেন যারা বিভিন্ন নিশ নিয়ে ব্লগসাইট তৈরি করে প্রতিমাসে  লাখ লাখ টাকা ইনকাম করেছেন। কিন্তু বর্তমান সময়ে গুগল অ্যাডসেন্স অনেকটা সোনার হরিণের মতই । কারণ আজকের দিনে গুগলের অনেক নিয়ম-নীতি আপডেট হয়েছে। ফলে গুগল এখন খুবই কঠোর । গুগল  আপনার সামান্যতম খুদ খুঁজে পেলেও আপনার এডসেন্সএ্যাপ্রুভ করবে না।

আজকে আপনাদের সাথে এমনি কিছু তথ্য শেয়ার করবো যার কারনে এ্যাডসেন্স এ্যাপ্রুভ পেতে বারবার বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখিন হয়েছি ।  এখন অনেকেই মনে করতে পারেন- আপনি যে টিপস দিচ্ছেন আপনার নিজেরই তো অ্যাডসেন্স নিয়ে সমস্যা। তাদের উদ্দেশ্যে বলবো, হ্যাঁ এটা সত্য যে অ্যাডসেন্স নিয়ে আমার সমস্যা রয়েছে। কিন্তু সমস্যা ছিল, আছে এবং তার সমাধান করতে পেরেছি বিধায় কিন্তু আজ আপনাদের টিপস দেওয়ার সুযোগ ও সাহস পাচ্ছি।

আপনাদের এজন্যই জানাতে চাই যে, যাতে আপনারা এধরনের কোনো সমস্যায় না পড়েন। যাইহোক আসুন জেনে নেই সমস্যাগুলো গুলো কি কি?

আমার একটি নতুন সাইটে আমি প্রায় এক সপ্তাহ আগে এ্যাডসেন্স এর জন্য আবেদন করেছিলাম । এ্যাডসেন্স একাউন্ট চেক করতে গিয়ে দেখি গুগল আমাকে কিছু ইরোর (Error) মেসেস পাঠিয়েছে।

গুগল অ্যাডসেন্স ড্যাশবোর্ডে পাওয়া মেসেস

মেসেসটি ছিল এরকম

You need to fix some things to use AdSense

We’ve found policy violations on http: myothersite com that are preventing your site from being approved:

• Valuable inventory: Scraped content

As stated in our Program policies, we may not show Google ads on pages or apps with little or no value and/or excessive advertising to the user. This includes pages or apps that are scraping or rewriting of content from other sources without adding value. Please see Google’s Webmaster quality guidelines for thin content with little or no added value for more information.

For more information, review the following resources:

o Policy tips for creating high quality sites (part 1)

Policy tips for creating high quality sites (part 2) o Webmaster quality guidelines • AdSense Program policies

View the content policies or visit the Help Center for more information. After you’ve fixed the violation, you can request a review of your site.

মেসেজে বলা হচ্ছিল তারা আমার সাইটে একটি সমস্যা খুজে পেয়েছে যার নাম স্ক্রাপ কন্টেন্ট (Scrape Content) । যেটা সমাধান না করলে তারা আমার এডসেন্স এপ্রুভ করবেন না ।

এখন তাহলে আমাদের জানা দরকার স্ক্রাপ কন্টেন্ট (Scrape Content) কি? তাহলে আসুন আগে দেখে নিই স্ক্রাপ কন্টেন্ট সর্ম্পকে গুগল কি বলছে।

স্ক্রাপ কনটেন্ট (Scrape Content)

স্ক্রাপ কনটেন্ট (Scrape Content) সর্ম্পকে গুগলের নিবন্ধটি আমি আমার মত করে ব্যাখা করছি । Scrape Content এর আরেক নাম হচ্ছে Rewrite করা । অথ্যাৎ আপনি যখন অন্য একটি সাইট থেকে যেকোনো একটি Article কপি করে বিভিন্ন রিরাইটার টুলস ব্যাবহার করে নতুন একটি আর্টিকেলে রুপ দেবেন এবং কপি করা কন্টেটির আর কোনো Value থাকেনা তখন সেটার নাম স্ক্রাপ কন্টেন্ট।

আমরা একটা বিষয় বুঝতে পারিনা, সত্য বলতে আমিও বুঝতাম না । একটা Article যখন অন্য সাইট থেকে কপি করে Scrape/Rewrite করা হয়, তখন রিরাইটার টুলস অটোমেটিকভাবে ওই আর্টিকেলের থাকা শব্দগুলো পরিবর্তন করে তার প্রতিশব্দ বসিয়ে দেয়। কিন্তু যার ফলে যে বাক্যগুলো অর্থই বদলে যায় এবং পাঠকের পক্ষে পড়া ও বুঝা খুবই দুষ্কর হয সেটাই আমরা বুঝতে পারি না।

অনেকের মধ্যে প্রশ্ন হতে পারে তাহলে আপনার সাইটে স্ক্রাপ কন্টেন্ট সমস্যা দেখালো কেন, আপনিও কি কন্টেন্ট রিরাইট করেছিলেন?

হ্যাঁ আমিও মাত্র তিনটি কন্টেন্ট রিরাইট করেছিলাম । কারণ এর আগে রিরাইট করা কন্টেন্ট দিয়েও এ্যাডসেন্স পাওয়া যেত। কিন্তু গুগল এখন সব বুঝতে পেরে গেছে সেজন্য তারাও তাদের নিয়ম-নীতি আপডেট করেছে। তাই এখন আর গুগলকে ফাকি দিয়ে এ্যাডসেন্স পাওয়া সম্ভব নয়।

আজকাল ইউটিউবে অনেকেই কিভাবে সহজেই ইউনিক কন্টেন্ট পাওয়া যায় তা নিয়ে টিউটোরিয়াল দিচ্ছেন। সেখানে তারা রিরাইট করে ইউনিক কন্টেন্ট পাওয়ার পরামর্শ দেন । আমি আপনাদের অনুরোধ করবো আপনারা এটা থেকে বিরত থাকুন । কারন  রিরাইট করে আপনার কন্টেন্ট কপি চেক করলে অবশ্যই ১০০% ইউনিক দেখাবে কিন্তু গুগলের কাছে তার কোনো মূল্য থাকবেনা । এতে আপনার মেধা ও সময় দুটোই অপচয় হবে কিন্তুকোনো সমস্যা নেই । আপনি যে ভাষা ভালো জানেন সেই ভাষাতেই নিজেরমত করে লেখালেখি শুরু করেন। আর আপনি যদি একান্তই Rewrite/Scrape করতেই চান তাহলেও কোনো টুলস ব্যবহার না করে নিজের ভাষায় নিজের মত করে করুন তাতে গুগল কোনো সমস্যা করবে না।

এডসেন্স নিয়ে কাজ করলে এপ্রুভ হওয়ার আগে ও পরে বিভিন্ন সমস্যায় পড়াটা স্বাভাবিক । যেমন ধরুন এডসেন্স এপ্রুভ হওয়ার পরে সমস্যাগুলোর মধ্যে রয়েছে Ads.txt error, Robot.txt error, Invalid click activity, Ads limit problem, Ads not show, Adsense disable ইত্যাদি ইত্যাদি।

নিজের মেধায় নিজের ভাষায় কিছু করুন:

 আপনি একটি ওয়েব সাইটের পিছনে সময় দিচ্ছেন তাহলে আরও একটু ভালো করে সময় দিন । একটু কষ্ট করে নিজের মেধায় কিছু লেখালেখি করুন অবশ্যই সুফল পাবেন । আপনার ইংরেজিতে দূর্বলতা থাকতেই পারে তাতে সমস্যা, আপত্তি বা লজ্জার কিছুই নেই। আপনি যে ভাষা ভালো জানেন সে ভাষাতেই নিজের মত করে আর্টিকেল লিখুন । আপনি যদি বাংলা ভালো জানেন তাহলে বাংলায় লিখুন, হিন্দি ভালো জানেন হিন্দিতেই লিখুন। তাতে কোনো সমস্যা নেই। অনেকের মাথায় নিশ্চই একটা ভাবনা শুরু হয়ে গেছে যে, বাংলা এবং হিন্দি আর্টিকেলে তো সিপিসি (CPC=Cost per click) তুলনামূলকভাবে অনেক কম তাহলে সেই কন্টেট লিখে লাভ কি?

আচ্ছা ধরুন আপনি একটি High CPC ইংরেজি Article লিখলেন কিন্তু সেটাকে গুগলে র‌্যাংক করাতে পারলেন না । বা গুগল আপনার পোস্টটি Copy/Scraped/Rewrite বিধায় র‌্যাংক থেকে বঞ্চিত করল তাহলে সেই High CPC Article এর কি মূল্য থাকল? অপরদিকে মনে করুন, আপনার নিজের ভাষায় লেখা একটি কন্টেট  ‍গুগলের সার্চ এলগরিদমে র‌্যাংক হয়ে গেল। পোস্টটির অনেক ভিজিটর থাকায় আপনার অল্প অল্প করে অনেক ইনকাম হলো । এদিকে সেই পোস্টটির সিপিসিও বাড়তে থাকলো। তাহলে কোনটি ভালো সেটা নিজেই বিচার করবেন।

যাইহোক আজকে অনেক বেশি লেকচার দিয়ে ফেললাম । ধর্য্যসহকারে পড়ার জন্য সবাইকে অফুরান ধন্যবাদ । আর পোস্ট টি ভালো লাগলে শেয়ার করে আপনার বন্ধুদের দেখার সুযোগ করে দিন। আপনার ভালো লাগা মন্দ লাগা জানাতে পারেন কমেন্ট বক্সে।

এই পোস্টটির ভিডিও দেখুন

About sujan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *